চৌমহনী পৌরসভা

বেগমগঞ্জ, নোয়াখালী

+880321-52096, +8800 1712-513584

chow.poura@gamil.com

ইতিহাস
 

ইতিহাস
Admin, 2017-04-20

চৌমুহনী পৌরসভাঃ প্রতিষ্ঠাকাল ১৯৭৩ সাল,  প্রধান উদ্যেক্তা জননেতা  নুরুল হক এম, পি (হক সাহেব)

 চৌমুহনী  নামকরনঃ  পূর্ব নাম- মদনগঞ্জ-পরে চৌমুহনী নামে পরিচিতি লাভ করে।

তথ্যসূত্র          ঃ  এ,কে,এম,মক্সম বিল্লা ও অশ্বিনী কুমার সোম রচিত ‘‘নোয়াখালীর ইতিহাস সন ১৯৩০।       

অবস্থান         ঃ  বাংলাদেশের  দক্ষিনাঞ্চলীয় জেলাঃ  নোয়াখালীর  অধীনে  বেগমগঞ্জ  উপজেলার অন্তর্গ ত  চৌমুহনী পৌরসভা

সীমানা           ঃ পূবে-র্  সুরের পুল, পশ্চিমে- ছলিম মিয়ার বাড়ীর দরজা আমানতপুর মাদ্রাসা, উত্তরে- পল্লী বিদ্যুৎ 

    সমিতি ,  দক্ষিনে- একলাশপুর।

বৃহত্তর পরিসরে  - পূর্বে- জমিদার হাট, পশ্চিমে- বাংলাবাজার, উত্তরে- বজরা, দক্ষিনে-সদর -মধ্য এলাকা জুড়ে  চৌমুহনী পৌরসভা ।

 যোগাযোগঃ  ডিবি রোড হয়ে ( ডিষ্ট্রিক্ট বোর্ডের রাস্তা) ফেনী-ঢাকা-চট্রগ্রামের সাথে যুক্ত। পশ্চিমে চৌরাস্তা হয়ে চন্দ্রগঞ্জ-লক্ষীপুর-রায়পুর-মেঘনাঘাট। চৌরাস্তা থেকে দক্ষিনে জেলা সদর হয়ে হাতিয়া ঘাট। উত্তরে নরোত্তমপুর, নাটেস্বর-সোনাইমুড়ী, জেলার সীমানা পার হয়ে বিশ্ব রোড।

 রেলযোগাযোগ   :  সরাসরি-ঢাকা।

গুরুত্বঃ  থানা- জেলা বিভাগীয় শহর নয় - অথচ জেলার প্রাণকেন্দ্র। এক কথায় বানিজ্যিক কারণে হাট-বাজার-বন্দর-গঞ্জ বলা চলে। ভৌগলিক, বানিজ্যিক, শৈল্পিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক  অধিষ্ঠানে জেলার প্রাণভোমরা চৌমুহনী পৌরসভা। জেলার কেন্দ্রস্থল বললে ও অত্যুক্তি হবে না। যদিও জেলার প্রশাসনিক শহর মাইজদী, সদর, নোয়াখালী।

ধান-চাল-সুপারি-মরিচ-ব্যবসা প্রধান, সরিষার তৈল উৎপাদন (কাঠের ঘানির মিলে) সমগ্র দেশের ৪০%। তৈলকল পূর্বে ছিল ২২টি। যোগেন্দ্র মজুমদারসহ হিন্দু মুসলিম ব্যবসায়ীরা উদ্যোক্তা। বর্তমানে চৌমুহনী একটি উলেস্নখযোগ্য বানিজ্য কেন্দ্র। সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক  দিক থেকেও গুরুত্ত্ব র্পূণ স্থান

অন্যান্য প্রতিষ্ঠান   ঃ বেগমগঞ্জ হাইস্কুল। প্রতিষ্ঠা ১৯৪৩ সালে। অর্থানুকুলে স্বনামধন্য ব্যবসায়ী রামেন্দ্র সাহা, আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, কৃষি প্রশিক্ষন ইন্সষ্টিটিউট, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ (ভোকেশনাল), গ্লোব ফার্মাসিটিউক্যাল লিঃ, বিসিক শিল্প নগরী, বড় মসজিদ, কাচারীবাড়ী মসজিদ, মার্কেজ মসজিদ (খালহাটা), শ্রী শ্রী রাধামাধব জিউর মন্দির, শ্রী শ্রী রামঠাকুরের সমাধি আশ্রম, শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রক্ষাচারীর মন্দির, পৌর গোরস্থান ও পৌর মহা-শশ্মান, হেলিপোর্ট ময়দান, বেগমগঞ্জ ষ্টেডিয়াম, হিন্দু মুসলিম সম্প্রতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত । ষাটের দশকে প্রতিষ্ঠিত ডেল্টা জুট মিলস লিঃ জেলার বৃহত্তম ভারী শিল্প।

 

চৌমুহনী কলেজ পরবর্তীতে চৌমুহনী এস এ কলেজ বর্তমানে চৌমুহনী সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ। প্রতিষ্ঠাকাল ১৯৪৩ সাল। কলেজ কমিটির প্রথম সম্পাদক অচ্যুতানন্দ সাহা ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনকারী ভারত বিজ্ঞানী ডঃ মেঘনাথ সাহা। প্রথম অধ্যক্ষ বৈষ্ণবাচার্য ডঃ রাধা গোবিন্দ নাথ। তৎপরবর্তীতে স্বনামধন্য অধ্যক্ষ তোফজ্জল হোসাইন। চৌমুহনী মদন মোহন উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাকাল ১৯৪৩। শিক্ষা গৌরবে ছিল শিখরে । বর্তমানে পৌরসভাধীন অনেক প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা রয়েছে। গনিপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নোয়াখালী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, জালাল উদ্দিন কলেজ, বেগমগঞ্জ সরকারী কারিগরী  উচ্চ বিদ্যালয়।

দেশ বিদেশের স্বানামধন্য প্রতিষ্ঠান পুথিঘর। প্রতিষ্ঠাতা চিত্ত রঞ্জন সাহা সন- ১৯৪৮। সমগ্র পাকিসত্মানের  সীমা ছেড়ে বিদেশক্ষ্যাত প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান  ১৯৭১ এ মুক্ত ধারার যাত্রা। চিত্ত সাহা ও মুক্ত ধারার পথ ধরে বর্তমানে জাতীয় পর্যায়ের ২১শে বই মেলা।

উলেস্নখযোগ্য ব্যবসায়ী ব্যক্তিত্ব :  হাজী আবদুল মজিদ, উপেন্দ্র কুমার সাহা, মহেন্দ্র কুমার সাহা, চিত্ত রঞ্জন সাহা, জ্যোতিলাল সাহা, রোহিনী কুমার সাহা, আবুল কোম্পানী, মাইজ্যা মিয়া প্রমুখ। বর্তমানে হিন্দু মুসলিম অসংখ্য প্রখ্যাত ব্যবসায়ী আছেন।

গান্ধী ক্যাম্পঃ  যোগেন্দ্র মজুমদারের বাড়ী, রেল ষ্টেশনের পশ্চিম পাশে লাল কুটির। ১৯৪৬ সালে দাঙ্গা উপদ্রূত অঞ্চলে মহাত্না গান্ধীর আগমন।

সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন: উল্লেখ যোগ্য চৌমুহনী গন মিলায়তন (পাবলিক হল) উদীচী, থিয়েটার, প্রবাহ বর্তমানে সাংস্কৃতিক জোটসহ বেগমগঞ্জ কালচার একাডেমী ইত্যাদি।

সাংস্কৃতি কর্মকান্ডের উদ্যোক্তাঃ জননেতা নুরুল হক, ডাঃ সামচুদ্দিন, প্রানজিৎ সাহা, আবুল খায়ের ও অধ্যাপক রমনাথ সেন।

আর্কষনঃ রামেন্দ্র মজুমদার অধ্যাপক চৌমুহনী এস এ কলেজ, বহুব্রীহি নাঠ্য গোষ্ঠির প্রতিষ্ঠাতা। অধ্যাপক আবদুল মোমিন, অধ্যাপক ইসমাইল হোসেন।

রাজনৈতিক অবস্থা:  পাকিস্তান আমল-আওয়ামী লীগ, মুসলিম লীগ, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, বামপন্থী (অনুশীলন দল) কমিউনিস্ট পার্টি , (কখন ও প্রকাশ্য কখনও গোপন)।

 নেতৃবৃন্দঃ  জননেতা নুরুল  হক এম, পি (আওয়ামী লীগ),  ছেরাজল হক (মুসলিম লীগ)  আবদুল হাদি,  এডভোকেট আবদুল হাই,  এডভোকেট জয়নাল আবদীন (ন্যাপ), গাজী আমিন উল্যাহ, সিরাজ মিয়া, আক্কাছ মিয়া, কালী প্রসন্ন সাহা, (আওয়ামী লীগ), ডাঃ রাজ বিহারী, (কমিউনিস্ট পার্টি) উলেস্নখযোগ্য প্রাক্তন নেতৃত্ব।